ডিসেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« মে    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Free counters!

পোষ্ট প্রসেসিং - নিজের ভাবনা

অনেকেই দেখলাম ক্যামেরায় ছবি তুলে কোন রকম পোষ্ট প্রসেসিং না করে একধরণের আত্মপ্রসাদ অনুভব করে থাকেন। আপনার ফ্রেমিং এবং কম্পোজিশন যদি ভাল হয়ে থাকে তবে আপনি অবশ্যই কিছু ক্রেডিট পেতে পারেন। কিন্তু কোন রকম পোষ্ট প্রসেসিং ছাড়া ছবি’র মানে হলো ক্যামেরা আপনার হয়ে কাজটা সেরে ফেলেছে, এখানে আপনার ন্যুনতম ক্রেডিট নেই। ডিজিটাল ক্যামেরায় যে ছবি আমরা পাই তা সবসময়ই একদম নিখূঁত হয় না, পরবর্তীতে এক্সপোজার, কালার,ব্রাইটনেস, স্যাচুরেশন ইত্যাদি সামান্য পরিবর্তন করলে হয়তো ছবি দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠতে পারে। এ ব্যাপারে আমার নিজের ভাবনাগুলি আপনাদের সাথে শেয়ার করি …

১. ফটোগ্রাফি এডিট করা মানে হলো ভাল / খারাপ ছবি বাছাই করা। মানে খারাপ ছবি বাদ দিবেন, ভাল ছবি ক্রমানুসারে সাজাবেন। এটাই হলো এডিট।
২. আপনারা যেটাকে এডিট বলছেন, সেটা আসলে পোষ্ট প্রসেসিং
৩. ডিজিটাল ক্যামেরা সত্যিকার অর্থে কোন ছবি তুলে না। সে কেবল আলোর তারতম্যের ডেটা কালেক্ট করে। মানে কোন বিন্দু (পিক্সেল বললে হয়তো আরো ভাল হয়) কত টুকু আলো আছে কিংবা নাই, ক্যামেরা সেন্সর কেবল সেসব তথ্য কালেক্ট করে। যারা ডিএসএলআর ক্যামেরা ইউজ করেন তারা এই ডেটাগুলো পান RAW ফাইলে (যদি ক্যামেরায় সেট করা থাকে RAW ফাইল হিসেবে সেভ করার জন্য)
৪. যারা সাধারণ ডিজিটাল ক্যামেরা / মোবাইল ক্যামেরা এসব ইউজ করেন তাদের ক্ষেত্রেও সেন্সর RAW ডেটা কালেক্ট করে এবং সেটাকে ছবিতে (জেপেগ / জেপিইজি ফরম্যাটে) কনভার্ট করে। প্রতিটি ক্যামেরায় ছোট একটি প্রসেসর থাকে, যে আসলে এই কাজটি করে থাকে। এই প্রসেসরে আসলে লক্ষ লক্ষ কিংবা কোটি কোটি ছবি বিশ্লেষণ করে কিছু তথ্য দেয়া থাকে, সেন্সরে ধারণ করা তথ্যের সাথে এই বিশ্লেষণ করা তথ্য মিলিয়ে প্রসেসর আসলে ছবিটি তৈরী করে।
৫. যারা কম্প্যাক্ট ক্যামেরা / মোবাইল ক্যামেরা বা অন্য যে কোন ক্যামেরায় ছবি তুলছেন এবং এডিট করছেন না বলে বেশ প্রাউড ফিল করছেন, তারা আসলে ক্যামেরার তৈরী করা ছবি নিয়ে কথা বলছেন। এখানে আপনার ক্রেডিট কেবল ফ্রেমিং এবং কম্পোজিশনে, বাকি সব আপনার ক্যামেরার।
৬. যে বা যারা পোষ্ট প্রসেসিং করে একটি দৃষ্টি নন্দন ছবি উপহার দিচ্ছেন, তাদের ক্রেডিট এখানে সব চাইতে বেশী বলে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি। কারণ তিনি ফ্রেমিং / কম্পোজিশনের বাইরেও তার ক্রিয়েটিভিটির সাক্ষর রাখছেন।
৭. এখানে বলে রাখা ভাল, মানুষের চোখ যা দেখে বর্তমানের সবচেয়ে লেটেষ্ট সূবিধাযুক্ত ক্যামেরাও সেটা দেখতে বা তৈরী করতে পারে না।
৮. আগেকার দিনের ফিল্ম ক্যামেরা যারা ব্যবহার করতেন তারা ফিল্ম প্রসেসিং এবং প্রিন্টিং এর সময় নানা টেকনিক ব্যবহার করতেন। এছাড়া ছবি তোলার সময় নানা ধরণের ফিল্টার ইউজ করার প্রচলন ছিলো। তারা এইসব ফিল্টার, ফিল্ম প্রসেসিং এবং প্রিন্টিং এর সময় যেসব টেকনিক ব্যবহার করতেন, আমরা আমাদের সময়ে পোষ্ট প্রসেসিং এ সেগুলো ব্যবহার করছি। সেই সাথে হয়তো নতুন নতুন টেকনিক যোগ হচ্ছে।
৯. আপনি পোষ্ট প্রসেসিং ছাড়া যে কোন ক্যামেরায় অটো মোডে ভাল ছবি তুলেন এটা নিয়ে বাগাড়ম্বর করার কিছু নেই। সেই সাথে যে পোষ্ট প্রসেসিং করে ছবি আরো দৃষ্টিনন্দন করতে চাইছে তাকে হেয় করে বলারও কিছু নেই, সে জাষ্ট তার ক্রিয়েটিভিটি প্রকাশ করতে চাইছে মাত্র, হয়তো অনেক ক্ষেত্রে সেরকম সফল হচ্ছে না। তার মূল ক্রেডিট হলো সে একটা যন্ত্রের হাতে সব কিছু ছেড়ে দেয়নি, নিজের মাথা খাটিয়ে আরো একধাপ উপরে উঠতে চাইছে। আপনি যেখানে ফ্রেমিং এবং কম্পোজিশনের বাইরে বাকিটা ক্যামেরা নামক যন্ত্রের হাতে ছেড়ে দিয়েছেন।

আমরা এখন অনেকেই নিয়মিত নেট ব্যবহার করছি। কারো কারো হয়তো আনলিমিটেড নেট ব্যবহারের সূযোগ আছে। আর নেটের এই বিশাল ভূবনে তথ্যের ভান্ডার থেকে আপনি ইচ্ছে করলেই অনেক কিছু জানতে, বুঝতে এবং শিখতে পারবেন। সুতরাং এই সূযোগের সদ্ব্যবহার আমরা করতেই পারি। ফটোগ্রাফি সংক্রান্ত অসংখ্য সাইট আছে, আছে আর্টিকেল। একটু সময় দিন, পড়ুন। অনেক কিছুই জানতে পারবেন।

এ নিয়ে অনেক আগে একটা পোষ্ট দিয়েছিলাম, পড়ে দেখতে পারেন

ফটোশপ “হ্যাঁ” – ফটোশপ “না”

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>