ডিসেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« মে    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Free counters!

G বনাম D এবং YN 50 mm প্রাইম লেন্স

YN 50 mm Prime for Nikon

নতুন নাইকন ইউজাররা বেসিক / এন্ট্রি লেভেলের D3xxx বা D5xxx মডেলের ক্যামেরার কেনার পর প্রথম ধাক্কাটা খান প্রাইম লেন্স কেনার সময়, বিশেষ করে ৫০ মিমি প্রাইম কেনার সময়। নাইকনের ৫০ মিমি প্রাইম আছে বেশ কয়েকটা এবং এদের দামেও বেশ পার্থক্যও আছে। একটা আছে এফএক্স বা ফুল ফ্রেমের জন্য, আপাতত সেটা বাদ রেখেই কথা বলি। ডিএক্স বা ক্রপড সেন্সরের জন্য আছে ২টা ৫০ মিমি প্রাইম লেন্স। প্রথমটি হলো AF-S 50 mm f/1.8 G এবং দ্বিতীয়টি হলো AF 50 mm f/1.8 D লেন্স।

Nikon D3000 এবং Yongnuo YN

বিস্তারিত …

শ্যালো ডেপথ অফ ফিল্ড : ব্লারড ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেসবুকের ফটোগ্রাফি বিষয়ক গ্রুপগুলোতে ইদানিং একটি প্রশ্ন প্রায়ই দেখি – ব্যাকগ্রাউন্ড ঘোলা করবো কি ভাবে অথবা অমুক লেন্স দিয়ে কি ব্যাকগ্রাউন্ড ভাল ঘোলা হয় নাকি অন্য কোন লেন্স / ক্যামেরা আছে ব্যাকগ্রাউন্ড বেশী ঘোলা করার। মাঝে মধ্যে এরকম প্রশ্ন দেখলে হাসি পায়। মনে হয় কেবল ব্যাকগ্রাউন্ড ঘোলা করার জন্যই লোকে ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনে এতো দাম দিয়ে। আসলে ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনে শাটার টিপলে ছবি উঠবে কিন্তু ফটোগ্রাফি জানতে-বুঝতে আপনাকে এর ব্যবহার শিখতে হবে বৈকি। শুধূ শাটার টিপলে তো ছবি উঠে যে কোন ক্যামেরাতেই এবং বর্তমানের মোবাইল

বিস্তারিত …

লেন্স টারমিনোলজি

ক্যামেরার জন্য লেন্স পছন্দ করতে গেলে প্রথমেই একটু হয়তো খটকা লাগে এর গায়ে লেখা বিভিন্ন অক্ষর আর সংখ্যা দেখে। কিছু হয়তো এমনিতেই বোঝা যায়, আবার কিছু হয়তো অবোধ্যই থেকে যায়। এই সমস্যা বেশী হয় একদম নতুনদের বেলায়। আমারও হয়েছিলো যখন প্রথম ডিএসএলআর কিনি। সাথে একটা কিট লেন্স ছিলো, গোল বাঁধলো পরবর্তী লেন্স কেনার সময়। নাইকন লেন্সে আবার ফোকাস মোটর নিয়ে একটা ঝামেলা আছে। সব লেন্সে আবার এই ফোকাস মোটর নেই। ফলে কম দামী ক্যামেরা বডিতে (ডি৩xxx এবং ডি৫xxx সিরিজ) ফোকাস মোটর না থাকায় সব লেন্সে

বিস্তারিত …

ম্যাক্রো ফটোগ্রাফী - ১

আসলে এই পোষ্টের শিরোনাম হওয়া উচিত ‘গরীবের ম্যাক্রো ফটোগ্রাফী’। ডিএসএলআর ক্যামেরা কেনার পর নেটে এবং বিভিন্ন সূত্রে বিভিন্ন ধরণের ছবি দেখার পর সবারই এক ধরণের ঝোঁক চাপে ঠিক সেই রকম একটি ছবি তোলার। তারপর নানা ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর যখন দেখা যায় সে ধরণের ছবি তোলা যাচ্ছে না, তখন স্বভাবতই মন খারাপ হয়। কিছু সময় পর সবারই আসলে বোধোদয় হয় – ডিএসএলআরে বিভিন্ন ধরণের ছবি তোলার জন্য ভিন্ন ভিন্ন লেন্স ব্যবহার করতে হয়। পয়েন্ট এন্ড শুট ক্যামেরার মতো এক লেন্সেই সব কাজ করা সম্ভব নয়। ম্যাক্রো

বিস্তারিত …

বর্ষাকাল এবং ফাঙ্গাস

আমাদের দেশে বর্ষাকালে আদ্রতা বেশী আর শীতকালে ধূলো, দু’টোই ক্যামেরা এবং লেন্সের শত্রু। অতিরিক্ত আদ্রতার কারণে লেন্সে ফাঙ্গাস পড়ে আর ধূলো-বালি জমা হতে পারে সেন্সরে। তাই সব সময়ই ক্যামেরা এবং লেন্সের জন্য বাড়তি কিছু যত্ন প্রয়োজন।

১. ক্যামেরা এবং লেন্স সব সময় শুকনো এবং আলোকিত স্থানে রাখুন। ভেজা / স্যাতস্যাতে এবং অন্ধকারাচ্ছন্ন পরিবেশ ফাঙ্গাস তৈরীর জন্য উপযুক্ত পরিবেশ। ২. ক্যামেরা এবং লেন্স সব সময়ই ব্যবহার শেষে পরিস্কার করে কোন এয়ার টাইট বক্সে সিলিকা জেল দিয়ে রাখুন। সিলিকা জেল অতিরিক্ত আদ্রতা শুষে নিবে। ৩.

বিস্তারিত …

ফ্রি ফটোগ্রাফী ই-বুক (২)

camera

শখের ফটোগ্রাফী গ্রুপে (এবং অন্যান্য গ্রুপে ও) প্রায়ই একটি প্রশ্ন আসে কোন ক্যামেরা কিনবো – ক্যানন না নাইকন। আমি সাধারণত উত্তর দেই এইভাবে যে ক্যানন এবং নাইকন দু’টোই খূব ভাল ক্যামেরা। আপনার বাজেট অনুযায়ী যে মডেলটি আপনি কিনতে সক্ষম সেটিই চোখ বন্ধ করে কিনে ফেলেন। অনেকেই আবার চিন্তায় থাকেন ভবিষ্যতে যদি আপগ্রেড করতে হয় তখন কি করবো। এটিও খূব সহজ, ভবিষ্যতে যদি আপগ্রেড করার চিন্তা করেন তবে অবশ্যই আগে ভাল প্রফেশনাল লেন্স কেনার চিন্তা করবেন ক্যামেরা বডি আপগ্রেডের আগে। ভাল একটি লেন্স আপনার ফটোগ্রাফীর মান

বিস্তারিত …

লং এক্সপোজারে শার্প ছবি

camera

লং এক্সপোজার ফটোগ্রাফীতে বহমান জীবনের প্রতিচ্ছবি তুলে রাখা যায়। যা কিছু চলছে, সেগুলো দেখা যায় কিছুটা ব্লার বা অস্পষ্ট আর যে সব জিনিস একদম স্থির, সেগুলো হয়ে উঠে একদম ষ্পষ্ট বা শার্প। নরমালি শর্ট এক্সপোজারে শার্প ছবির জন্য ২টি নিয়ম মানা হয়। সাধারণ ওয়াইড এঙ্গেল লেন্সে ছবি তুলতে গেলে শাটার স্পিড রাখা উচিত কমপক্ষে ১/৬০ সেকেন্ড বা এর চাইতে দ্রুততর। দ্বিতীয় নিয়মটি মানা হয় সাধারণত টেলি জুম লেন্সের ক্ষেত্রে। আপনি ফোকাল লেন্থ যেটি ব্যবহার করবেন, শাটার স্পিড হবে ১/সেই ফোকাল লেন্থ। আপনি যদি ২৫০ মিমি

বিস্তারিত …

প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফী

camera

হরদম বৃষ্টি হচ্ছে। নিতান্ত প্রয়োজন না পড়লে কেউ ঘরের বাইরে বের হচ্ছে না। ঘরে বসে আর কি করবেন ? চলেন কিছু প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফী করা যাক। না, এটার জন্য কোন বড় ষ্টুডিও দরকার নেই। দরকার নেই খূব দামী কিছু সেটআপ। ঘরেই আছে এমন কিছু দিয়েই আপনি যে কোন প্রোডাক্টের ছবি তুলতে পারেন। কেবল দরকার একটু ধৈর্য্য। এর জন্য দরকার হবে একটা টেবিল, না পেলে একটা চেয়ারই যথেষ্ঠ। একটা শক্ত কার্ডবোর্ড (ফেলে দেয়া যে কোন কার্টুন বা বক্স হতে পারে, আমি আমার স্ক্যানারের বক্সটা কেটে ব্যবহার করেছি), কিছু

বিস্তারিত …

আর্দ্রতা থেকে ক্যামেরা / লেন্স সুরক্ষা

camera

আমাদের দেশে ক্যামেরা এবং লেন্সের বড় শত্রু বাতাসের আর্দ্রতা এবং ধূলোবালি। শীতকালে ধূলোবালি বেশী থাকে আর বর্ষাকালে আর্দ্রতা। ধূলোবালি থেকে ক্যামেরা এবং আনুসঙ্গিক যন্ত্রপাতি রক্ষা করা এবং পরিস্কার করা অপেক্ষাকৃত সহজ হলেও বর্ষাকালে অতিরিক্ত আর্দ্রতা থেকে ক্যামেরা এবং লেন্স রক্ষা করতে হলে একটু বেশী যত্ন নিতে হয়। ধূলোবালি চোখে দেখা গেলেও জলীয় বাস্প কিন্তু আপনি চোখে দেখছেন না। ফলে আর্দ্রতার প্রভাবে লেন্সে শেষ পর্যন্ত ফাঙ্গাস পড়লে আপনি টের পাবেন কি ক্ষতিটা আসলে হয়েছে।

যেসব দোকানে বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি বিক্রি করে, সেখানে ডেসিকেটর (বা ডেসিকেটিং বক্স) বলে

বিস্তারিত …

সেল্ফ পোর্ট্রেট

camera

অনেক সময়ই নিজের ছবি নিজেকেই তুলতে হয়। হয়তো আশে-পাশে ভাই-বোন-বন্ধু তেমন কেউ ই নেই যে আপনাকে একটু সাহায্য করতে পারে। একেবারে নির্বান্ধব অবস্থায় নিজের ছবি তোলাটা এমন কঠিন কিছু না। এর জন্য আপনার দরকার হবে একটা ট্রাইপড, একটা ষ্ট্যান্ড, একটা ফোকাস টার্গেট – ব্যস এই কয়টা জিনিস হলেই আপনি আপনার নিজের পোর্টেট ছবি নিজেই তুলে ফেলতে পারবেন। ‘ফোকাস টার্গেট’ জিনিসটা শুনতে ভারিক্কি লাগলেও জিনিসটা একটা ইমেজ। প্রথমে এরকম একটা ফোকাস টার্গেট প্রিন্ট করে নিন। এই পোষ্টের সাথে যে ইমেজটা দেয়া হলো সেটাই আপনি A4 পেপারে

বিস্তারিত …

Page ১ of ২